এজেএম আহছানুজ্জামান ফিরোজ :
শ্রীবরদীর গোসাইপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এসএম জুবায়েল হোসেনের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলে সাংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যসহ ও এলাকাবাসী।
সোমবার দুপুরে গোসাইপুর ইউনিয়ন পরিষদে অনুষ্ঠিত সাংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাজু মিয়া।
তিনি বলেন, ভিজিএফ, ভিজিডি, দুঃস্থমাতা, বয়স্কভাতা ও আবাসন প্রকল্পের ঘর বরাদ্দসহ নানা কার্যক্রমে ব্যাপক দুর্নীতি অনিয়ম করে যাচ্ছে। এমনকি চেয়ারম্যান জুবায়েল ইউনিয়ন পরিষদে কার্যক্রম না চালিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে তার বাড়ির পাশে একটি দোকান ঘর থেকে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চালায়। এতে এলাকার মানুষ নানা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ৪নং ওর্য়াডের ইউপি সদস্য আব্দুর রেজ্জাক ও এলাকাবাসী।
ভুক্তভোগী মাটিয়াকুড়া গ্রামের আহাল মিয়ার স্ত্রী কমলা খাতুন বলেন, আমি সুদের উপর টাকা নিয়ে চেয়ারমানকে ঘর বরাদ্দের জন্য টাকা দিয়েছি কিন্তু চেয়ারম্যান আমার নামে ঘর বরাদ্দ দেননি এবং আমার টাকা ফেরত না দিয়ে হয়রানি করে আসছেন।
এছাড়াও মাটিয়াকুড়া গ্রামের বুলু মিয়ার স্ত্রী জেলেহা খাতুন, টুনকো শেখের ছেলে মকবুল হোসেনও একই অভিযোগ করেন। আ: ছাত্তার, মোস্তফাসহ অনেকেই অভিযোগ করেন বলেন, আমাদের নামে ঈদুর আযজা উপলক্ষে বরাদ্দের ভিজিএফ চালের কার্ড থাকলেও চেয়ারম্যান আমাদেরকে চাল দেননি। উল্টো ধামক দিয়ে তাড়িয়ে দিয়েছেন।
অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান এসএম জুবায়েল হোসেন বলেন, ওই ইউপি সদস্য আমার স্বাক্ষর জাল করে বয়স্কভাতাসহ নানা কার্যক্রম করায় তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

Facebook Comments
bdwebhost24.com