বাড়িশেরপুর জেলানালিতাবাড়ীনালিতাবাড়ীতে ৭ গ্রামের মানুষের ভোগান্তির দেড় কিলোমিটার

নালিতাবাড়ীতে ৭ গ্রামের মানুষের ভোগান্তির দেড় কিলোমিটার

- Advertisement -

অভিজিৎ সাহা, নালিতাবাড়ী প্রতিনিধিঃ

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার ০৯ নং মরিচপুরান ইউনিয়নের খলাভাঙা গ্রাম।এই গ্রামের রাস্তা দিয়েই ৭ টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে।গ্রামের সওদাগর আলীর বাড়ি থেকে জোনাব আলীর বাড়ি পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার কাচা রাস্তা। বর্ষা এবং বৃষ্টির সময় এই রাস্তা দিয়ে পায়ে হেঁটে যাতায়াতেরও উপায় থাকে না। আর এই রাস্তাটিই নালিতাবাড়ী শহর ও পাশের হালুয়াঘাট উপজেলায় যাতায়াতের জন্য একমাত্র পথ।ফলে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ৭ গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের।

উপজেলার খলাভাঙা, পাশ্ববর্তী হালুয়াঘাট উপজেলার গোরকপুর, ঘোরকপুর উত্তর পুর্বপাড়া, মোকামিয়া, চক মোকামিয়া, ঘোনাপাড়া, বকশিগঞ্জ গ্রামের মানুষের নালিতাবাড়ী উপজেলায় যোগাযোগের এই একটি মাত্র রাস্তার বেহাল দশা হওয়ায় সাধারন মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই।

খলাভাঙা গ্রামের সাইদ মল্লিক জানান, বিকল্প পথ না থাকায় এই একটি মাত্র রাস্তা দিয়েই কয়েক গ্রামের মানুষ নালিতাবাড়ী উপজেলায় নিয়মিত যাতায়াত করে। বর্ষা মৌসুমে এই রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে যায়। তখন সময় পায়ে হেটে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পরে। কেউ অসুস্থ হলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া অনেক কষ্টের ব্যাপার হয়ে যায়।

একই গ্রামের কৃষক সিরাজ আলী জানান, আশে পাশের সব গুলো গ্রাম থেকেই নালিতাবাড়ী শহরের দূরত্ব কম। যাতায়াত ব্যবস্থার এই বেহাল দশার কারনে কৃষকেরা ধান বিক্রির জন্য বাজারে নিয়ে যেতে পারে না। এতে তারা ধানের প্রকৃত মূল্য পায় না। ফলে কৃষকদের ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। 

জানা যায়,এই কয়েকটি গ্রামে প্রচুর সবজির আবাদ হয়। রাস্তা খারাপ হওয়ায় কৃষকেরা এসব সবজি বাজারে নিয়ে যেতে পারে না। বাদ্য হয়ে গ্রামের বাজারে তাদের এসব সবজি বিক্রি করতে হয়। এতে সঠিক মূল্য পায় নাকৃষকেরা । এতে ফসল চাষে আগ্রহ হারাচ্ছেন কৃষকেরা।

স্থানীয়রা বলেন,একটু বৃষ্টি হলেই পুরো রাস্তা জুড়ে পানি জমে থাকে।রাস্তাটি কর্দমাক্ত হয়ে পড়ে। দেড় কিলোমিটার এই রাস্তাটি সংস্কার হলে যেমন যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল হবে তেমনি কৃষিতেও অবদান রাখবে এই ৭ গ্রামের মানুষ। ৭ টি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবী দ্রুত যেনো এই রাস্তাটির সংস্কার কাজ করা হয় এবং তা যেনো হয় টেকসই।

- Advertisement -
- Advertisement -

আরও সংবাদ

- Advertisement -

অন্যান্য সংবাদ

- Advertisement -