দ্বিতীয় দিনেও চলছে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার

bdwebhost24.com

দ্বিতীয় দিনের মতো ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার চলছে। সকাল ১০ থেকে এ সাক্ষাৎকার শুরু হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাক্ষৎকার গ্রহণ করছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এছাড়া মনোনয়ন বোর্ডে রয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যাারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

সকাল ১০ টায় বরিশাল-১ আসনের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে দ্বিতীয় দিনের সাক্ষাৎকার গ্রহণ শুরু হয়। বরিশাল বিভাগের সাক্ষাৎকার গ্রহণ শেষে বিকালে খুলনা বিভাগের জেলাগুলোর প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার শুরু হবে। চলবে রাত পর্যন্ত। আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম বিভাগ এবং বেলা আড়াইটা থেকে রাত পর্যন্ত কুমিল্লা ও সিলেট বিভাগের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করা হবে।

পরদিন বুধবার সকাল ৯টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত ময়মনসিংহ বিভাগ ও বৃহত্তর ফরিদপুর এলাকা এবং বেলা আড়াইটা থেকে রাত পর্যন্ত ঢাকা বিভাগের প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ হবে।

এদিকে সাক্ষাৎকার গ্রহণকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ের সামনে দলীয় নেতাকর্মীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। প্রত্যেক প্রার্থীর সঙ্গে তার অনুসারী নেতাকর্মীরা বাইরের রাস্তায় ভিড় করছেন। তবে কোন শ্লোগান দিচ্ছেন না তারা। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শেষে নেতার সঙ্গে ছবি তুলতে দেখা যায় অনেককে। অন্যদিকে এই সাক্ষাৎকারকে ঘিরে বিএনপি কার্যালয় এলাকায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। কার্যালয় এলাকায় প্রবেশের মূল রাস্তার দুই মোড়ে ডাইভারশন করে দিয়েছেন। গাড়িগুলো তল্লাশি করে ভেতরে প্রবেশ করাচ্ছেন। জনসাধারণ চলাচলও সীমিত করা হয়েছে। তবে কার্যালয়ের সামনে কোন পুলিশ মোতায়েন করা হয়নি।
অন্যদিকে সাক্ষৎকার গ্রহণকে কেন্দ্র করে সিএসএফ সদস্যরাও বেশ তৎপর। কার্যালয়ের ভেতরে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে যাকে ডাকা হচ্ছে তাকে ছাড়া কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। ফটো সাংবাদিকদের বেছে বেছে প্রবেশ করানো হচ্ছে। বিএনপি চেয়াপারসনের প্রেস উইং সদস্য যাকে প্রবেশ করাতে বলছেন শুধু তাকেই ভেতরে প্রবেশ করতে দিচ্ছেন সিএসএফ সদস্যরা। এর বাইরে কোন সাংবাদিক বা নেতাকর্মীও কার্যালয়ের ভেতরে প্রবেশ করতে পারছেন না।

এর আগে গতকাল প্রথমদিনে রংপুর বিভাগে ৩৩ আসনে ১৫৮ জনের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছে এবং রাজশাহী বিভাগে ৩৯ আসনে ৩৬৮ জনের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য হতে চান ৪ হাজার ৫৮০ জন। ধানের শীষ প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য এরা সবাই দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম কিনেছেন। যাচাই-বাছাই শেষে বিএনপির প্রার্থী চুড়ান্ত করা হবে ৮ই ডিসেম্বর। গতকাল সাক্ষাৎকার শেষে কয়েকজন মনোনয়ন প্রত্যাশী মানবজমিনকে বলেন, সাক্ষাৎকারের শুরুতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কথা বলেন। এরপর দলের সিনিয়র নেতারা প্রত্যেককে একে একে প্রশ্ন করেন। জানতে চান কেন আপনাকে নমিনেশন দেয়া হবে? নমিনেশন পেলে কি করবেন?  জয়ী হতে পারবেন কি না? দল থেকে যাকে নমিনেশন দেয়া হবে তার পক্ষে কাজ করবেন কি না?

bdwebhost24.com
সূত্রঃমানবজমিন
শেয়ার