bdwebhost24.com

বরিশালে বাকেরগঞ্জ উপজেলায় মাদরাসা পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে হেরে এক ইমামের মাথায় মল-মূত্র ঢেলে লাঞ্ছিত করেছে পরাজিত প্রার্থী ও তার লোকজন। লাঞ্ছিত ইমাম আবু হানিফা (৫০) কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদরাসার সুপার ও নেছারবাগ বায়তুল আমান জামে মসজিদের ইমাম।

রবিবার সকালে এই ঘটনায় বাকেরগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করেন ইমাম আবু হানিফা। তবে এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

অভিযুক্তরা হলো- পরাজিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম খন্দকার, সহযোগী জাকির হোসেন জাকারিয়া, মো. মাসুম সরদার, মো. এনামুল হাওলাদার, মো. রেজাউল খান, মো. মিনজু, সোহেল খন্দকার ও মিরাজ হোসেন। অভিযুক্ত সবার বাড়ি কাঠালিয়ায়।

জানা যায়, গত ফেব্রুয়ারি মাসে কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রার্থী হন এইচ এম মজিবর ও জাহাঙ্গীর খন্দকার।

এই নির্বাচনে ইমাম আবু হানিফা সভাপতি প্রার্থী এইচ এম মজিবর রহমানের পক্ষ নেন। নির্বাচনে বিজয়ী হন এইচ এম মজিবর রহমান। পাশাপাশি সভাপতি প্রার্থী জাহাঙ্গীর খন্দকার হেরে যায়। এ নিয়ে আবু হানিফার সঙ্গে জাহাঙ্গীর খন্দকারের দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

পাশাপাশি বিভিন্ন সময় ইমাম আবু হানিফাকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল পরাজিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর খন্দকার ও তার সহযোগীরা। গত শুক্রবার ফজরের নামাজের পর আবু হানিফা মসজিদ থেকে বের হলে তার পথরোধ করে পরাজিত প্রার্থী ও তার লোকজন।

এ নিয়ে ইমামের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে পরাজিত প্রার্থী জাহাঙ্গীর খন্দকারের এক সহযোগী ইমাম আবু হানিফার হাত ধরে ফেলে। পাশাপাশি জাহাঙ্গীর খন্দকার ইমামকে ধরে রাখে। এ সময় তার আরেক সহযোগী হাঁড়িভর্তি মল-মূত্র এনে ইমাম আবু হানিফার মাথায় ঢেলে দেয়। এতে উল্লাসে ফেটে পড়া দৃশ্যটি ভিডিও ধারণ করে।  মল-মূত্র ঢালার ওই দৃশ্যটি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেয় তারা।

এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা। তারা জড়িতদের শাস্তি দাবি করেছেন।

ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ও শাস্তি দাবি জানিয়ে রঙ্গশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বশির উদ্দিন বলেন, যতই বিরোধিতা থাকুক সমাজের একজন সম্মানিত ইমামকে এভাবে কেউ অপমানিত করতে পারে ভাবতেও ঘৃণা লাগে। বিষয়টি দেখে খুবই কষ্ট পেয়েছি।

অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল হক জানান, আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে।

 

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার ১২ নং রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের কাঠালিয়া গ্রামের দাখিল মাদ্রাশার সন্মানিত প্রিন্সিপাল জনাব মো: আবু হানিফার মাথায় হারি ভরতি মানুসের পায়খানা ঢেলে শায়েস্তা করতেছেন স্থানিয় মাদক ও নারী ব্যাবশায়ী জাহাংগীর খন্দকার ও মাসুম সরদার,সংগে তাদের সাংগ-পাংগ। একজন বয়সী মুরুব্বী সুন্নতী দাড়ি ও পোশাক পরিহিত অবস্থায় তাকে এভাবে অসন্মানী ও শারিরীক নিরজাতন ভিডিও করে ছেড়ে দেয় এবং তাকে হত্যার হুমকি দেয়। তার অপরাধ ছিল – সে এই খারাপ মানুসটিকে তার মাদ্রাসার সভাপতি করেননি। সমাজের বিবেকবান মানুষ ও প্রশাসনের কাছে এর বিচার চাই

Posted by Asad Khan on Saturday, 12 May 2018

 

সূত্রঃ বিডি মর্নিং

Facebook Comments
bdwebhost24.com