পুকুর থেকে কিশোরীর লাশ উদ্ধার, ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ

লক্ষ্মীপুরে শাকচর এলাকার একটি পুকুর থেকে কিশোরী আসমা আক্তারের (১৪) বছরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের পর তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বজনরা। উদ্ধারের পর আসমা বেঁচে আছে ভেবে গতকাল শনিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একই সাথে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানান চিকিৎসক। আসমা শাকচর এলাকার ফয়েজ আহমদের মেয়ে।

হাসপাতাল ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় শাকচর গ্রামের বাসিন্দা ফয়েজ আহমদের মেয়ে আসমাকে বাড়ীতে রেখে তার মা তার বাবার কর্মস্থলে (ফেনী) যান। এসময় আসমাকে দেখভালের জন্য তার নানী হালিমা বেগমকে দায়িত্ব দিয়ে যান তার মা।
গতকাল সন্ধ্যার পর আসমাকে  নিজ বাড়ীতে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করেন তার স্বজনরা। রাত ৮ টার দিকে বাড়ীর পাশের পুকুরে বিবস্ত্র অবস্থায় তার লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
নিহতের মামা মো. হানিফ ও নানী হালিমা বলেন, বিবস্ত্র অবস্থায় পুকুর থেকে আসমার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ধার্ষণের পর তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।
সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জয়নাল আবদীন বলেন, আসমাকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। সূত্রঃ মানবজমিন ।

bdwebhost24.com
শেয়ার