ধর্ষণের পর কুপিয়ে হত্যা!

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পূর্বাচল উপশহরে অজ্ঞাত দূর্বৃত্তরা এক যুবতীকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে। ধর্ষণের পর এই হত্যাকান্ড বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা। বুধবার দুপুরে পূর্বাচলের ১০নং সেক্টরের হারারবাড়ি এলাকা থেকে নিহত তরুনীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
রূপগঞ্জ থানার এস আই সাজাউল ইসলাম জানান, বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জনমানব শুন্য পূর্বাচলের ১০নং সেক্টরের হারারবাড়ি এলাকার একটি প্লটে জঞ্জাল দিয়ে ঢাকা এক অজ্ঞাত পরিচয়ের তরুনীর (৩১) বিবস্ত্র মৃতদেহ দেখতে পেয়ে প্লটের সবজী চাষী আরমান মিয়া পুলিশকে সংবাদ দেয়। পরে পুলিশ সে তরুনীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।
প্রাথমিক সুরতহালে দেখা যায়, নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে এবং স্পর্শকাতর অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়া তাকে এলোপাথারিভাবে কুপিয়ে চেহারা বিকৃত করে দেয়া হয়েছে। একাধিক ব্যক্তি ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ গোপনের উদ্দেশ্যে উক্তস্থানে ঢেকে রেখে গেছে বলে ধারনা স্থানীয়দের। তবে পুলিশ বলছে ফরেনসিক রিপোর্ট না আসা অবধি ধর্ষিত কি না বলা যাচ্ছে না।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, পূর্বাচল জনমানব শূন্য বিশাল এলাকা। সন্ধ্যার পর ভূতুরে এলাকায় রুপান্তরিত হয় পুরো পূর্বাচল।

এ কারণে অপরাধীরা সেখানে নির্ভিগ্নে অপরাধ সংঘটিত করে পালিয়ে যেতে পারে। আমরা সেখানে নতুন থানার প্রস্তাব করেছি। সেটা বাস্তবায়ন হলে অপরাধ রোধ সম্ভব হবে। তরুণী নিহতের ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

bdwebhost24.com
শেয়ার